Itel it5081, জাভা সমর্থিত ফিচার ফোনটিতে একসাথে ৩টি সিম ব্যবহার করা যায়

আসসালামু আলাইকুম। এন্ড্রয়েড যে বাটন ফোন বা ফিচার ফোনের জনপ্রিয়তাকে কমাতে পারেনি, তার একটা প্রমাণ হলো, এর আগে আমার করা Symphony D101 এর রিভিউ, যেটা এ পর্যন্ত এই ব্লগের সবচেয়ে বেশি দেখা পোস্ট।

তো যাই হোক, যদি সেই রিভিউটা পড়ে থাকেন, তবে আপনি জানেন, ফোনটার উপর অত্যাচার কম করিনি। একদিন, অত্যাচারের মাত্রা আর সইতে না পেরে সে বলে দিলো, বিদায় পিতিবি… তাই এখন আমি সপ্তাহ তিনেক হলো চালাচ্ছি আমার নতুন ফোন, Itel it5081।

ফোনটির বিভিন্ন দিক শেয়ার করব, আর তারপর আমার মতামত দিব, ফিচার ফোন হিসেবে এটা কেনা কতটা উচিৎ হবে বা হবে না। তাহলে শুরু করি।

Itel it5081

এক নজরে Itel it5081

Internal Memory8 MB ROM + 8 MB RAM  
Expandable MemoryUp to 32 GB
Display2.4″  
Rear CameraYes
SIMTriple (2 Regular+1 Micro)  
Battery1150 mAh
MultimediaMP3, MP4, Wireless FM  
Dimension128.5 X 55.3 X 12.9mm  
ConnectivityInternet, Bluetooth
Special FeaturesJava, Bright Torch, Opera Mini,
Wireless FM, Magic Sound etc

ভালো-মন্দ

ডিজাইন

আমার হাতে ফোনটা দেখে ডিজাইন নিয়ে অনেকেই প্রশংসা করেছে, এবং হ্যাঁ, ফোনটা ডিজাইন পছন্দ হওয়ার মতই। বিশেষ করে ক্যামেরাটাকে দুর্দান্তভাবে বসানো হয়েছে। আর পুরো ফোনটি সাদা কিন্তু ডিসপ্লের চারপাশ ও উপরের দিকের বাটনগুলো কালো কালার, যেটা দেখতে খুব সুন্দর। রাউন্ড করে দেওয়া বাটনগুলোও দেখতে ভালোই। সব মিলিয়ে স্মার্ট লুকিং একটি ডিভাইস বলতে হচ্ছে।

জাভা সমর্থন

ফোনটিতে রিয়েল জাভা সমর্থন রয়েছে। ফলে আপনি .jad এবং .jar এক্সটেনশনযুক্ত অ্যাপগুলো চালাতে পারবেন।

ব্রাউজিং

Itel it5081 ফোনটিতে ওপেরা মিনি যুক্ত আছে এবং একারণে বেসিক ইন্টারনেট ব্রাউজিং, যেমন ফেসবুক চালানো, গুগলে তথ্য অনুসন্ধান, হযবরল ব্লগে ঘোরাঘুরি এগুলো করতে কোন সমস্যা হবে না। তবে ইউটিউব ভিডিও দেখা বা এধরণের টাস্কগুলো সম্ভব নয়।

ইন্টারফেস

ফোনটির ইন্টারফেস মন্দ না। তবে অবশ্য আইটেলের অন্য কিছু মডেল, যেমন: it5320 এর ইন্টারফেস আমার চোখে এর চেয়ে ভালো ছিলো। তবে এটাও ভালোই। বিশেষ করে আইকনগুলো পছন্দ হয়েছে।

তিন সিম

তিন সিম বা চার সিম সমর্থিত অন্য যে বাটন ফোনগুলো দেখেছি, সেগুলো অন্যান্য দিকে একদমই সাদামাটা। অর্থাৎ, জাভা সমর্থন নেই, অপেরা মিনি নেই এরকম। কিন্তু এই ফোনটিতে তিন সিমের পাশাপাশি অন্য কাজের ফিচারগুলোও আছে।

ব্যাটারী

1150 mAh এর ব্যাটারি রয়েছে এতে। একবার ফুল চার্জে ঠিক কতদিন চলে আমি বলতে পারবো না। এটুকু বলতে পারি, একবার পুরো চার্জ দিলে কয়েকদিন আর চার্জের কথা মাথায় রাখতে হয় না।

ম্যাজিক সাউন্ড

মজার একটা ফিচার, যেটা আমার আগের ফোনটিতেও ছিলো। এটা একটা ভয়েস চেঞ্জার অ্যাপ যা এই ফোনে সংযুক্ত, এবং এটা খুব চমৎকার কাজে দেয়! এটা এনাবল রেখে ফোনে কথা বলে আপনার ভয়েসকে Men, Women এবং Child এ কনভার্ট করতে পারবেন। কথা বলার মাঝেও ভয়েস চেঞ্জ করে নেওয়া যায়। এটা ব্যবহার করে অচেনা নাম্বার থেকে কল দিলে এরপর কাহিনী হয়ে যেতে পারে…

বিল্ড কোয়ালিটি

বলে দেওয়ার প্রয়োজন নেই, Itel it5081 ফোনটি প্লাস্টিকে তৈরি। তবে ফোনটা কতটা মজবুত, তা আমি বলতে পারবো না। কেননা, আগের ফোনটিকে ভাঙার পর এর উপর আর অত্যাচার চালানোর সাহস পাইনি।

স্পিকার

ফোনটির স্পিকার বেশ লাউড, অডিও শুনতেও সমস্যা নেই। আর বক্সে প্রোভাইড করা ইয়ারফোনটা বিশেষ কিছু না, কিন্তু ফিচার ফোনের ইয়ারফোন হিসেবে ভালোই। কিন্তু সাউন্ড নিয়েই এই ফোনের সবচেয়ে বড় সমস্যা… প্রথমত, ফোনটি যেকোন সাউন্ড হওয়ার সময়ই ভ্রাইব্রেট করে, এবং এই সমস্যাটা শুধু আমার ডিভাইসটিতেই নয়, এক বন্ধুর একই ফোনে সমস্যাটি দেখলাম। ফোনটা হাতে নিয়ে টোকা দিলেই যেন একটা স্প্রিঙের অস্তিত্বের মত অনুভূতি হয়, যেটা ঠিক কেমন লেখায় বোঝানো কঠিন। যদি ভ্রাইব্রেশন মোড দিয়ে রাখি, তবে যেরকম ভ্রাইব্রেট হয়, খুবই অদ্ভুত… আর দ্বিতীয়ত, কল কোয়ালিটি…

কল কোয়ালিটি

যেহেতু ফিচার ফোনের মূল দায়িত্ব অনেকের জন্য কল করা আর কল ধরা, সেহেতু এটা গুরুত্বপূর্ণ একটা দিক। ফোনটার কল কোয়ালিটি খুব ভালো নয়। তবে চলার মত।

দাম

দামদরের অদক্ষতায় পকেট থেকে টাকা কিছু বেশি চলে গেছে। ফোনটা আমি কিনেছি ১৪০০ টাকা দিয়ে। তবে ফোনটি ১২৫০ টাকার মধ্যেই পেয়ে যাওয়ার কথা।

ওয়ারেন্টি

আইটেল তাদের ফোনগুলোতে ১২ মাসের রেগুলার ওয়ারেন্টির সাথে প্রথম ১০০ দিন রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে। অর্থাৎ, এই সময়ের মধ্যে ফোনটির কোন ম্যানুফ্যাকচারিংজনিত সমস্যা ধরা পড়লে তারা এর পরিবর্তে আপনাকে নতুন আরেকটি ফোন দিবে।

মতামত

যদি আপনি শুধু কল করা ও কল ধরার মত একটি ফোন চান, আমি আপনাকে এই ফোনটি সাজেস্ট করব না। কেননা, ফোনের কল কোয়ালিটি খুব বেশি সন্তোষজনক ছিলো না। এর পরিবর্তে ৮০০-৯০০ টাকার মধ্যেই কোন একটি ভালো ফোন নেওয়া উত্তম হবে মনে করি।

কিন্তু এমনিতে ফোনটা চালিয়ে বেশ মজা পাচ্ছি। বিশেষ করে, সুন্দর ডিজাইনের জন্য ফোনটি যারা দেখে, তারা পছন্দ করে। যদি আপনি কল করার সাথে সাথে ছোটখাট জাভা গেমিং, ইন্টারনেট ব্রাউজিং প্রভৃতি করতে চান, তবে এই ফোনটি নিতে পারেন। আর যেহেতু একসাথে তিনটি সিম চালানো যাবে, এটা আপনাকে বিবেচনায় রাখতে হবে।

তবে যদি আমাকে জিজ্ঞেস করা হয় Symphony D101 এবং এটা, কোনটির অভিজ্ঞতা ভালো ছিলো, আমি বলব D101। আইটেলের এই ফোনটি খারাপ না, কিন্তু সত্যি বলতে D101 কে মিস করছি।

লেখাটি কেমন লাগলে কমেন্টে জানানোর অনুরোধ থাকলো। আর লাইক দিন আমাদের ফেসবুক পেজে এবং আমাদের সাথে থাকুন।

আরও পড়তে পারেন:

About the Author: তাহমিদ হাসান

এইতো, প্রতি ষাট সেকেন্ডে জীবন থেকে একটি করে মিনিট মুছে যাচ্ছে, আর এভাবেই এগিয়ে চলেছি মৃত্যুর পথে, নিজ ঠিকানায়। জীবন বড় অদ্ভুত, তাই না?

You May Also Like

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of