পেঙ্গুইনীয় (পর্ব-১১): ডিস্ট্রো পরিচিতি – লিনাক্স মিন্ট

লিনাক্স মিন্ট, বাংলায় পুদিনা পাতা, ডাকনাম মিন্টু, যেকোনটা বলতে পারেন। বিশেষ সুনাম আছে ইউজার ফ্রেন্ডলি হিসেবে। তাদের লক্ষ্য হলো একটি মডার্ন, এলিগেন্ট এবং কমফোর্টেবল ওএস তৈরি করা যেটা কিনা একইসাথে পাওয়ারফুল ও ইজি টু ইউজ। মিন্ট ডেবিয়ান ফ্যামিলির সদস্য এবং এটা উবুন্টুর এলটিএস ভার্সনের উপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়। এটি একটি পয়েন্ট রিলিজ ডিস্ট্রো। তবে উবুন্টুর মত সুনির্দিষ্ট কোন রিলিজ শিডিউল স্ট্রিক্টলি মেইনটেন করা হয় না।

লিনাক্স মিন্ট মাতে: কাস্টমাইজেশন শুরুর আগে

সাধারণ ব্যবহারকারী ও লিনাক্সে নতুন যারা, তাদের জন্য বিশেষভাবে লিনাক্স মিন্ট সাজেস্ট করা হয়ে থাকে। কারণ, এটা ব্যবহার করা খুবই সহজ। ইন্টারফেস বেশ ট্র্যাডিশাল, উইন্ডোজের সাথে মিল আছে। তাই উইন্ডোজ ব্যবহারকারীরা সহজেই ব্যবহার করতে পারে। নতুনদের কথা চিন্তা করে মিন্টকে বিশেষায়িত করা হয়েছে।

মিন্টের ওয়েলকাম স্ক্রিন বেশ সাহায্য করবে মানিয়ে নিতে। নতুন সিস্টেমটি ইন্সটলের পর কী কী করা যেতে পারে এবং কীভাবে করতে হবে, সে বিষয়ে ওয়েলকাম স্ক্রিনটি বেশ হেল্পফুল। একটি সিস্টেম রিপোর্ট টুল রয়েছে। কোন আপডেট, ড্রাইভার, কোডেক, ল্যাঙ্গুয়েজ প্যাক ইন্সটল প্রয়োজন আছে কিনা এ বিষয়গুলো এখানে ইনফর্ম করা হয়। একটি ব্যাকআপ ইউটিলিটি (টাইমশিফট)-ও রয়েছে, যাতে সিস্টেমের কোন সমস্যা হলে পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে আনা যায়।

ডেস্কটপ এনভায়রনমেন্টের কথায় আসলে লিনাক্স মিন্ট তিনটি এনভায়রনমেন্টে অফার করা হয়। সিনামন, মাতে ও এক্সএফসিই। তিনটিই বেশ লাইটওয়েট ও কাস্টমাইজেবল। মাতে বেশি কাস্টমাইজেবল এবং এক্সএফসিই সবচেয়ে লাইটওয়েট। তবে লিনাক্স মিন্টের ফ্ল্যাগশিপ হলো সিনামন বা দাঁড়চিনি। এটি তারা নিজেরাই ডেভেলোপ করে। পুদিনা পাতার সাথে দাঁড়চিনির কম্বিনেশন বেশ ভালো।

লাইট, সেমি-ডার্ক ও ডার্ক থিম রয়েছে লিনাক্স মিন্টে, যেগুলোর বিভিন্ন কালার একসেন্ট থাকছে। ডিফল্ট থিমে একটা সবুজ ছোঁয়া আছে মিন্টে। তাদের Mint-Y সিরিজের থিম ফ্লাট ও মডার্ন এবং Mint-X সিরিজটি ক্লাসিক ও ফ্যান্সি। এর বাইরে অন্য যেকোন GTK থিম ব্যবহারের সুযোগ তো আছেই।

উবুন্টু যেহেতু দুবছর পরপর এলটিএস ভার্সন রিলিজ করে, তাই এই সময়ের মধ্যবর্তী লিনাক্স মিন্টের প্রতিটি রিলিজ উবুন্টুর পূর্ববর্তী এলটিএস ভার্সনকে ভিত্তি করে তৈরি হয়। এর ফলে স্ট্যাবিলিটি ভালো হয়, তবে যারা আপ টু ডেট থাকতে পছন্দ করেন, তাদের হয়ত বিষয়টি ততটা পছন্দ হবে না। আর যারা একটু এডভান্সড কিছু খুঁজছেন, তাদের জন্যও মিন্ট সাজেস্ট করব না। মিন্টে খুব বেশি এক্সাইটমেন্ট পাইনি। বেশি সহজ কিনা, একটু বোরিং লাগতে পারে…

✓ নতুনদের জন্য ভালো
✓ উবুন্টুভিত্তিক
✓ ব্যবহার সহজ
✓ লাইটওয়েট
✓ ভালো মাল্টিমিডিয়া সমর্থন
✗ এক্সাইটিং নাহ…

Series Navigation<< পেঙ্গুইনীয় (পর্ব-১০): ডিস্ট্রো পরিচিতি – পপ ওএসপেঙ্গুইনীয় (পর্ব-১২): ডিস্ট্রো পরিচিতি – জরিন ওএস >>
0 0 vote
Article Rating
Default image
তাহমিদ হাসান
এইতো, প্রতি ষাট সেকেন্ডে জীবন থেকে একটি করে মিনিট মুছে যাচ্ছে, আর এভাবেই এগিয়ে চলেছি মৃত্যুর পথে, নিজ ঠিকানায়। জীবন বড় অদ্ভুত, তাই না?
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x