ব্লগস্পট ব্যবহার করে বিনামূল্যে নিজের ব্লগ/ওয়েবসাইট তৈরি (দিন ১/৭)

সহজভাবে বলা যায়, ব্লগ হলো অনলাইন ডায়েরি। অর্থাৎ, ডায়েরিতে আমরা যেমন নিজের মনের কথাগুলো লিখে রাখি, অনেকটা সেরকম। তবে পার্থক্য হলো, ব্লগ সাধারণত অনলাইনে সকলের দেখার জন্য উন্মুক্ত থাকে। অর্থাৎ, নির্দিষ্ট একটি ওয়েব ঠিকানায় ভিজিট করে অন্যরা আপনার ব্লগটি দেখতে পারবে।

একটি প্রফেশনাল ওয়েবসাইট তৈরি করতে দক্ষতা ও অর্থের প্রয়োজন হয়ে থাকে। তবে একটি পার্সোনাল ব্লগ কিংবা সাধারণ ওয়েবসাইট তৈরি করা বেশ সহজ এবং এটা বিনামূল্যেই করা যেতে পারে। এজন্য খুব জনপ্রিয় একটি প্লাটফর্ম হলো ব্লগস্পট, যেটি গুগলের একটি সার্ভিস। ব্লগার নামেও এটি পরিচিত।

ব্লগস্পট নামে ব্লগ থাকলেও নিউজ পোর্টালসহ বিভিন্ন ধরণের ওয়েবসাইট ব্লগস্পটের মাধ্যমে তৈরি করা যেতে পারে। আমরা চেষ্টা করব সাতদিনের মধ্যে ব্লগস্পটের প্রাথমিকটুকু শিখে নিতে।

শুরু করার পূর্বে আমি একটি প্রশ্নের উত্তর দিয়ে নিতে চাই, ব্লগস্পট থেকে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে উপার্জন সম্ভব কিনা। আসলে এটা অসম্ভব না, তবে সহজ কিছু নয়। উচ্চমাত্রার ডেডিকেশন ও ধৈর্য্যের প্রয়োজন এখানে। সাধারণভাবে অল্প কিছু পোস্ট লিখে অল্প সময়ের মধ্যে হাজার হাজার টাকার স্বপ্ন দেখা কিন্তু একদমই অনুচিৎ।

ব্লগস্পটে ব্লগ তৈরি

প্রথমেই আমাদের https://www.blogger.com/ ঠিকানায় যেতে হবে এবং সাইন ইন করতে হবে। সাইন ইনের জন্য নিজের জিমেইল আইডি ব্যবহার করতে হবে। জিমেইল আইডি না থাকলে তৈরি করে নেওয়ার জন্য এই নির্দেশনা অনুসরণ করতে পারেন।

সাইন ইন করার পর আমরা নতুন একটি ব্লগ তৈরির অপশন পাবো। এখানে প্রথমে আমাদের ব্লগটির নাম কী হবে তা নির্ধারণ করতে হবে। নাম বাংলা ইংরেজি যেকোনরকম হতে পারে। এরপর আমরা Next থেকে পরবর্তী ধাপে অগ্রসর হব।

পরবর্তী ধাপে আমাদের ব্লগের এড্রেস নির্ধারণ করতে হবে। গুগল বিনামূল্যে .blogspot.com সাবডোমেইন প্রদান করে থাকে। অবশ্য পরে .com, .net প্রভৃতি ডোমেইন আমরা ক্রয় করে যুক্ত করে নিতে পারবো। প্রফেশনাল ওয়েবসাইটে ডোমেইনের জন্য অর্থ খরচ করা সাধারণত বেশ প্রয়োজন। তবে, পার্সোনাল ব্লগ সাবডোমেইন দিয়েই চালিয়ে নেওয়া যেতে পারে।

এড্রেসটি অবশ্যই বুদ্ধিমত্তার সাথে নির্বাচন করতে হবে। কেননা, এই এড্রেসটিতে ভিজিট করেই অন্যরা আপনার ব্লগটি দেখতে পারবে। তবে, এড্রেসের নামটি অবশ্যই ইউনিক হতে হয়। ফলে বিভিন্ন কমন শব্দ সাধারণত এভেইলেবল পাওয়া যায় না। আবার, এড্রেসটি এমনও হওয়া উচিৎ, যেন সহজেই দর্শনার্থীরা মনে রাখতে পারে। সংক্ষিপ্ত হওয়া ভালো। সব মিলিয়ে একটি ভালো এড্রেস নির্বাচন করার জন্য বেশ চিন্তা-ভাবনার প্রয়োজন।

উপরের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, muthophone.blogspot.com ঠিকানাটি উপলদ্ধ নয়। অর্থাৎ, আমাকে অন্য একটি এড্রেস ব্যবহার করতে হবে। তো, আমি muthophoneblog.blogspot.com ঠিকানাটি ব্যবহার করলাম এবং Next থেকে পরবর্তী ধাপে গেলাম।

পরের ধাপে  ডিসপ্লে নেম দিতে বলা হচ্ছে। আপনি যে নামে ব্লগগুলো লিখতে চান, সে নামটি এখানে দিতে হবে।

এখন FINISH বাটনে ক্লিক করলেই আমাদের ব্লগ প্রস্তুত!

এখান থেকে View Blog বাটনে ক্লিক করে আমরা ব্লগটি দেখতে পারবো।

ড্যাশবোর্ড পরিচিতি

ব্লগস্পটের ড্যাশবোর্ডটি একদমই সিম্পল। বামদিকে একটি মেইন মেনু পাওয়া যাবে, যা মেনু ট্রিগারের সাহায্যে শো বা হাইড করা যাবে। মেনু থেকে বিভিন্ন অপশন একসেস করা যায়।

Series Navigationব্লগস্পট ব্যবহার করে বিনামূল্যে নিজের ব্লগ/ওয়েবসাইট তৈরি (দিন ২/৭) >>
0 0 vote
Article Rating
Default image
তাহমিদ হাসান
এইতো, প্রতি ষাট সেকেন্ডে জীবন থেকে একটি করে মিনিট মুছে যাচ্ছে, আর এভাবেই এগিয়ে চলেছি মৃত্যুর পথে, নিজ ঠিকানায়। জীবন বড় অদ্ভুত, তাই না?
Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x